মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২০

সোমা প‌্রামাণিক


সোমা প‌্রামাণিক

বিরহী

তোমার খোলা দু চোখে রাতের পাহারা,
উপোসী স্বপ্নেরা উৎসুক, রুগ্ন জিভে উচ্চারণ সোচ্চার হতে চায়।
পালা বদলের প্রত্যাশায় তুমি চাইলে এক ছুট...
তোমাকে নয় তোমার যন্ত্রণা কে ভালোবাসি আমি।।








অমোঘ

আজ সূর্য ছিলনা।নিষ্পাপ কুয়াশা।
হিম গন্ধে ভরে ছিল সকালের ঘুম।
ঘুম,ঘুম। কেউ জাগায় নি কেনো!
প্রভাতী চড়ুই!
ডিলিট হয়েছে নাম।
শুধু ক্লান্ত বদনাম।
জ‌্বর নামে গায়,নিম তেঁতো ঠোঁট।
সেই এক ইতিহাস। তোমার, আমার-অমোঘ।
কুয়াশায় বুনি রেখে সে কঠিন রোগ-
চলো রোদ্দুর হই।







নিখোঁজ

সুগন্ধি আতর ছড়িয়ে চলে গেলো কাঁচ ঢাকা গাড়িটা।
হাওয়া বয়ে ফেরে শুকনো কিছু খই।
মৃত্যুর পর সবার শিরোনামই - বডি।
এমনি করেই মুছে যায় পুরনো সব জোনাকির মাঠ।
যেমন করে মুছে গিয়েছিল ফার্স্ট ইয়ার এর বন্ধু প্রান্তিক।
শস্যের সাক্ষাৎ চেয়ে সাঁকোটা আঁকড়ে ধরার বৃথা চেষ্টায়।
নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গে মোমবাতি মিছিলে হেঁটে চলেছে
যৌথ খামারের স্বপ্ন। আজও।
যদিও রেনকোট পরা বহু লাশ এখনো সনাক্ত করা যায়নি।।