সোমবার, ২১ মার্চ, ২০১৬

চৌধুরী ফাহাদ


অনির্ণীতা সিরিজ
চৌধুরী ফাহাদ

অনির্ণীতা,
নাম ভূমিকায় তুমি ছিলে
আমি হাওয়া...

তোমাকেই বলেছি প্রিয়কথা,
হাওয়ার বুক ঝেড়ে তুলে আনি প্রেম
প্রিয়কথা,
তোমার চোখের জলে দেয়া নাম
কী অবাক! জলের রঙে তুমি বিধাতা!

কবিতাই ঈশ্বর আমার-যা তা
কবিতায় তুমি-আমি হাওয়া
অনির্ণীতা, তোমার নাম ভূমিকায়
আমি মেঘ-আমি জল-শূন্য মাদল

প্রিয়কথা, তোমাতেই বিলীন ঐশ্বর্য
তুমি বললেই আমি অন্ধ
তুমি বললেই আমি বধির
তুমি বললেই আমি বোবা
ত্রাতা তুমি-কবিতাও তুমি
তোমার চোখের জলে দেয়া নাম
কবিতার মত বিধাতা

প্রিয়কথা,
নাম ভূমিকায় তুমি আছো
ঘ্রাণে-আঘ্রাণে নিঃশ্বাসের চরণ
আকাশ দেখি-আকাশও তোমার মতন
নির্ণীত প্রিয় হেম তুমি
আমি হাওয়া...

ওবেলার মাঠে তোমাকে দেয়া আঘাতে
জ্বলে সূর্যকাল-জ্বলে যাপিত ঢাল-মহাকাল

নাম নিয়ে তুমি জলের আধার
আঁধারের মেঘে মেঘে শঙ্কিত সংসার
আকাশ ভেঙ্গে জ্বলে হৃদয়-আকাশও তুমি
সুহৃদ ঝরাতলে অবোধ বিধাতা
অঙ্কিত শ্রাবণে আমার নিমগ্ন আহার
ভাসান মেঘে ডুবে ডুবে থাকে নীল হৃদয়
অনির্ণীত তুমি-আমি আছি নির্ণয়ে
ভালোবেসে হত্যায় বিধাতা ভালোবাসা

প্রিয়কথা,
ভালোবেসে জেনেছি ভালোবাসা
হত্যাকারীর মত সর্বনাশা...





তোমার নাম বেদনা হলে
বর্ষাতিরা গ্রীষ্মেও আপন
হৃদয়ের মত আকাশও সরোবর-
শূন্যের ফাঁকি
ওই আকাশকে চোখ দিয়ে মেখে বুক দিয়ে ঢাকি
তোমার হৃদয়ের নির্যাস নীলাসক্ত বলেই
হয়'তো
আমি আকাশের মত উদার হয়ে উঠি
আকাশের মত হলে হৃদয়
তুমিই পরিচয়
ওখানে ব্যাথা-ওখানে সুখ-ভালোবাসা
তোমার বেদনা হলে, তোমার নাম নীলে লেখা হলে
এই চোখ শূন্যের মন-হৃদয় রহস্যের মত তোমার চাষা
প্রিয় কথা,
বিবাদের বাদানুবাদে চুপকথা বুকের ঈশ্বর
তারও মত সেই তুমি নিভৃতে এই বুকের ঘর
নির্ণীত যাপনে বিষাদের মত আপন
তুমি
অনির্ণীত যা আকাশ সে-দূর দূর নীল আচ্ছাদন
সেই সে নীল ধরে তোমার আদরে
নকশীকাঁথা
তুমি হৃদয় হলে জড়িয়ে বাঁচি নির্ভুল কবিতা
তোমার বিচ্ছুরিত আলো আকাশের মত বলেই
নীল-প্রিয় রঙ





বৃত্তাল্পনা তুমি
উড়ে উড়ে বস প্রজাপতি রঙ
আমি জলডাকাতের নামে রেখে আসি ফুলে
আকাশের অভিবাদন
প্রিয়কথা ঘ্রাণ হাওয়ায় হাওয়ায় মেঘটান
চুলখোলা ছাদে মাধবী রাত
ওমবুকের হেমচোখে জোছনা অকস্মাৎ
ধুমকেতুও ফিরে শূন্য আদরে শতাব্দী ওপার
আরও জন্ম পরে আরও বাহুডোরে
তোমাকেই চাই নিঃশ্বাস আমার মৌনদ্বার
মেঘের রাস্তা ধরে হেঁটে গেলে
আকাশ আকাশে নাই
কত কত জন্ম পরেও মাটির অধর
আকাশ বুকে আকাশে মুখ তুলে দাঁড়ায়
আরও জন্ম পরে আরও অধিকারে
নিবিড় আমি নিবিড় করে তোমাকেই চাই
অনির্ণীত বৃত্তাল্পনা তুমি
ছুঁয়ে ছুঁয়ে উড়ো জলগহবর
আমি মেঘপিয়নের খামে আসি উপকূলে
তোমার হৃদয়-প্রিয়কথা শহর





মরি মরি জোছনার উঠানে উতলা টানের ধীবর ছায়া
নি:সঙ্গ জলোচ্ছ্বাসের পরে এইসব রাত দীর্ঘ হয়ে উঠে
প্রাণান্ধ প্রতিমায় যতটা কাছের চাঁদ
সেই বিষন্ন বাহাসের পরে বিশ্বাস করো অনির্ণীতা
চাঁদ দেখিনি আর, দেখিনি চাঁদ ফুঁড়ে নামা রাতের জেল্লাতি
লুটানো জোছনায় জেনেছি শুধু ছায়ারও থাকে দুর্নিবার প্রণয়মায়া
২৬০৯২০১৫ ইং




তিনশত চৌষট্টি বার ঘুরে এসেও পূর্ণ হয়নি হৃদয়
প্রিয়কথা বিবাদ, তোমাকেও ভালোবাসি ভালোবাসার মতন
অনির্ণীতা বিষাদ, তোমাকেও...
নির্ণীত হলে প্রেম কাদাক্লান্ত চর
ভাটার মতন
সুনিশ্চিতেরও পতন থাকে
নিশ্চিত হলে গন্তব্য পথ ফুরিয়ে আসে, ভালোবাসাও
তিনশত চৌষট্টি বার ঘুরে এসেও পূর্ণ হয়নি হৃদয়
প্রিয়কথা, তুমি অনির্ণীত নেশা
হাওয়ার নামে নয় শ্বাস, প্রিয়কথাই আকাশ
এক কোটি ঘূর্ণন পরেও শিরা-উপশিরা-রক্তে তুমিই মাদক
থাকো, হৃদয় আছি...
ভালোবাসা জেনো নির্ণয়হীন
ভালোবাসি
অনির্ণীতা, তোমাকে...





ওঙ্কার
চৌধুরী ফাহাদ

ইজিচেয়ার থেকে আমি উঠার পর
সেই ভোরে,
বাবাকে দ্যাখিনি আর...
ইজিচেয়ারটা এখনো বাবার...





মা'য়ের সাথে সেই দক্ষিণ যাত্রার পর
কতবার ডাকলাম তাকে-'মা' !
মা ডাকে নাই আর...
এখনো বাড়ি ফিরছি সেই থেকে
রক্তের ছায়াডোরে-জন্মগ্রাম।
সহোদরও সেই একই ফেরা ফিরে...





যাত্রা নামক এক মহীশুর উঠানে
ঝুলে আছে থোকা থোকা রাতের পতাকা
বাড়ির সীমানায় বাড়ি নাই!
মা ডাকে কোথায়?
আকাশের কেন শব্দ নাই!
নীরবতায় প্রবোধ খুঁজি, এই রাতে...





পথ, হে পথ! ছায়া ফেল-আকাশে উঠে যাই,
বারুদগন্ধবুকে ঘর নাই-

মাটির মতন এই বুকে মাখি না কতদিন-মা!

1 টি মন্তব্য: